লিঙ্গ মোটা করার ঔষধ বা পদ্ধতিগুলো কি

লিঙ্গ মোটা করার ঔষধ কি? কি করলে বা কি খেলে লিঙ্গ মোটা হবে? লিঙ্গ শক্ত করার ঔষধ কি আছে? কোনো ব্যায়াম আছে কি যে লিঙ্গ বড় করা যায়? সব প্রশ্নের উত্তর নিয়া আজকের লেখা। আশাকরি সম্পুর্ণ লেখা পড়লে বিস্তারিত জেনে যাবেন।

লিঙ্গ বড় করার প্রয়োজনীয়তা কি

লিঙ্গ বড় করার জন্য অনেক পুরুষই বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেন, কারন কোনোভাবে হয়ত তিনি জানতে পেরেছেন বা বুঝতে পেরেছেন, তার স্ত্রী সম্ভবত লিঙ্গ নিয়ে একটু অসন্তুষ্ট, অথবা নিজের কাছেই মনে হচ্ছে লিঙ্গটা আরেকটু বড় করার প্রয়োজন। লিঙ্গ বড় হলে স্ত্রীলোকের যোনীতে আটসাট হয়ে প্রবেশ করে, তাতে একটু বেশি আনন্দ পাওয়া যায়। তাছাড়া সন্তান প্রসবের পর বেশিরভাগ নারীর যোনী একটু প্রশস্ত হয়ে পড়ে, এতে পুরুষেরা তেমন আনন্দ পায়না। এছাড়াও কিছু কিছু নারীর শারীরিক গঠনের কারনে তাদের যোনী পথ এমনিতেই একটু বড় হয়ে থাকে, তাই স্বামীদের লিঙ্গ একটু মোটা করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়।

লিঙ্গ বড় করার উপায় কি

লিঙ্গ বড় হয় কিভাবে এর কারন বের করতে পারলেই লিঙ্গের সাইজ পরিবর্তন করা সম্ভব। লিঙ্গের পেশীতে পেনাইল টিস্যু ও শিরাতে যদি রক্ত প্রবাহ বাড়াতে পারেন, এবং যেসব খাবার খেলে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পায়, ঐসকল খাদ্য পর্যাপ্ত পরিমানে নিয়মিত খেতে পারলে, লিঙ্গ আগের চেয়ে মোটামুটি সন্তুষজনক ভাবে বৃদ্ধি পাবে। এছাড়াও নিচে কিছু পদ্ধতি জানিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছি।

কি কি পদ্ধতিতে লিঙ্গ মোটা করা যায়

লিঙ্গ মোটা করার কয়েকটি পদ্ধতি আছে, এর মধ্যে ৪ টি পদ্ধতি পৃথিবীর বিভিন্ন দেশেই প্রচলিত।
সার্জারী পদ্ধতিতে লিঙ্গ লম্বা বা মোটা করা যায়।
ঔষধ বা সাপ্লিমেন্ট খাওয়ার মাধ্যমে লিঙ্গ মোটা বা শক্ত করা যায়।
হরমোনাল রিপ্লেস্মেন্ট থেরাপির মাধ্যমে লিঙ্গ বড় করা যায়।
ফিজিক্যাল টেকনিক বা ব্যায়ামের মাধ্যমেও লিঙ্গ লম্বা বা শক্ত করা যায়।

সার্জারীর মাধ্যমে কিভাবে লিঙ্গ মোটা করা যায়

আমাদের দেশে এই চিকিৎসা তেমন এভেইলেবল না থাকলেও পৃথিবীর উন্নত দেশে এই শল্য চিকিৎসা চালু আছে। তাদের অনেকেই সার্জারীর মাধ্যমে লিঙ্গের আকার পরিবর্তন করে, অর্থাৎ লিঙ্গের সাইজ কিছুটা বড় করে। তবে পেনাইল সার্জারীর মাধ্যমে লিঙ্গ বড় করলে কিছু সমস্যা দেখা দেয়, কারন লিঙ্গের রূটে যে সাস্পেনসরী লেগামেন্টে অপারেশনের মাধ্যমে লুজ করে দেয়া হয়, তাতে লিঙ্গকে শক্ত রাখার ক্ষমতা হারাবার আশঙ্কা থাকে। অর্থাৎ লিঙ্গ শুধু মোটাই হয়, কিন্তু আগের মতো শক্ত না হওয়ায় Erectile dysfunction দেখা দেয়।

লিঙ্গ শক্ত করার ঔষধের নাম কি

লিঙ্গ শক্ত করার জন্য সাধারণত ডাক্তাররা Sildenafil Tablet 50-100mg ওথবা Tadalafil 5-10mg মিলিগ্রামের ঔষধ লিখে থাকেন। তাতে কয়েক ঘন্টার জন্য লিঙ্গ শক্ত থাকে। তবে এগুলোও স্থায়ী কোনো চিকিৎসা নয়। এগুলো যতদিন খাবেন, ততদিন একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত লিঙ্গ শক্ত হয়ে দাঁড়িয়ে থাকবে, আর এই সময়ের মধ্যে কয়েকবার মিলন করা যাবে। কিন্তু এভাবে চলতে থাকলে একসময় এই ঔষধগুলো ধীরে ধীরে তার কার্য ক্ষমতা হারাতে থাকে।

জিনি ল্যাব এর একটা ঔষধ আছে এনইডি কিউর নামে, এটা খেলে ধীরে ধীরে লিঙ্গ মোটা ও শক্ত হতে থাকে। তবে দাম অনেক বেশি। ১ কৌটায় ৩০ পিস থাকে, দাম শুনলে অনেকের সমস্যা সমাধান হয়ে যাবার কথা। ১টি কৌটার দাম ৪৫০০ টাকা, তাও আবার খতে হবে প্রতিদিন ১টা করে মোট ৩ মাস।

লিঙ্গ বড় করার সাপ্লিমেন্ট বা হারবাল ঔষধ

লিঙ্গ বড় করার সাপ্লিমেন্ট বা হারবাল ঔষধই বেশী জনপ্রিয় এবং কার্যকরী, তবে ঔষধ প্রস্তুতকারীর উপর ঔষধের কার্যকারিতা নির্ভর করে। Erectile dysfunction বা লিঙ্গোত্থানজনিত সমস্যার জন্য বিশেষ খাবার, হারবাল, ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক সাপ্লিমেন্ট আছে যা বাংলাদেশে খুব বেশি জনপ্রিয়। লিঙ্গ শরীরের অন্যান্য মাংসপেশীর মতোই একটি অংশ, এতে কিছু ভিন্ন টিস্যু ও শিরা থাকে। যা রক্ত সঞ্চালনের কারনে হ্রাস বা বৃদ্ধি পায়। মুলত এই হ্রাস বা বৃদ্ধির জন্যই লিঙ্গের আকারের পরিবর্তন ঘটে। অর্ডার করুন

পুরুষের লিঙ্গের আকার নিয়ে অনেকেই অহেতুক হীনমন্যথায় ভূগে থাকেন, প্রকৃতপক্ষে অন্যান্য মাংস পেশীর মতোই লিঙ্গ বড় হতে পারে যদি সাপ্লিমেন্ট বা সম্পূরক খাদ্য অথবা হারবাল খাবার খেতে পারেন। এসবের মধ্যে খেজুর, দুধ, মাংস, কলা, বাদাম জাতীয় বীজ, ডিম এর সাথে হারবাল বীজের মিশ্রন নিয়মিত কয়েক মাস খেয়ে যাবেন। মনে রাখতে হবে, এগুলো ধৈর্য সহকারে অনেকদিন খেতে হয়। লিঙ্গের আকার পরিবর্তন করা একটি সাধনা, এই সাধনা কয়েকদিনে সম্ভবনা। অন্তত ৬-৭ মাস নিয়মিত খাওয়ার পর দেখা যাবে আগের চেয়ে অনেক পরিবর্তন হয়েছে।

লিঙ্গের সাইজ বাড়ানোর জন্য হরমোনাল রিপ্লেসমেন্ট থেরাপি

লিঙ্গের সাইজ বাড়ানোর জন্য হরমোনাল রিপ্লেসমেন্ট থেরাপি সাধারনত টিনএজ বয়স থেকেই করা যায়। যেমন, থাইরয়েড হরমোন, গ্রোথ হরমোন, টেষ্টোষ্টেরন হরমোন পরীক্ষা নিরীক্ষা করে যে সমস্যা দেখা যাবে তার রিপ্লেসমেন্ট থেরাপির মাধ্যমে চিকিৎসা করা সম্ভব। তবে এর জন্য হরমোন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া উচিৎ। এসব চিকিৎসা বাল্য বয়স থেকেই নেয়া যায়, কারন লিঙ্গের আকার কেমন হতে পারে তা বাল্য বয়সেই বুঝা যায়।

লিঙ্গ মোটা করার ব্যায়াম কি

লিঙ্গ মোটা করার জন্য কয়েকটা ব্যায়াম থাকলেও আদর্শ ব্যায়াম হলো- প্রতিদিন ২বার লিঙ্গের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত আলতুভাবে হাত মুট করে ম্যাসেজ করা। এটা যেন খুব তাড়াতাড়ি না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে, অন্যথায় বীর্যপাত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। এই পদ্ধতি ৬-৮ মাস চালিয়া যেতে হবে, ধৈর্য্য সহকারে এভাবে চালিয়া গেলে লিঙ্গ বড় ও শক্ত হবে।

লিঙ্গ মোটা করার মালিশ এর নাম কি

লিঙ্গ মোটা করার তেল বা মালিশ ব্যবহার করেও লিঙ্গ বড় করতে পারেন। এ তেল নিজেও তৈরি করতে পারেন, আবার বিশ্বস্ত কোনো কবিরাজের কাছ থেকে সংগ্রহ করে ব্যবহার করতে পারবেন। আমাদের সাইটে অনেক হারবাল চিকিৎসকের নাম্বার বা যোগাযোগের লিঙ্ক পাবেন, তাদের সাথে যোগাযগ করে এসব তেল সংগ্রহ করে যদি উপকার পান, তাহলে নিয়মিত ৫-৬ মাস ব্যবহার করবেন। তবে অবশ্যই যে তেল বা মালিশে তাতক্ষনিক রেজাল্ট আসে সেই তেল, জেল, মালিশ ব্যাবহার না করাই উত্তম।

আরো পড়ুন- ১ ঘন্টা বা দীর্ঘক্ষন মিলনের ট্যাবলেট এর নাম সহ বিস্তারিত

হারবাল ঔষধ কিনতে এখানে ক্লিক করুন

We will be happy to hear your thoughts

      Leave a reply

      হারবাল ঔষধ
      Logo
      Compare items
      • Total (0)
      Compare
      0
      Shopping cart